রবিবার, ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ রবিবার | ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চকরিয়ায় এমপি জাফর আলমের অবৈধ অব্যাহতির আদেশ প্রত্যাহার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

শুক্রবার, ১১ জুন ২০২১ | ১১:১৭ অপরাহ্ণ | 341Views

চকরিয়ায় এমপি জাফর আলমের অবৈধ অব্যাহতির আদেশ প্রত্যাহার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন
নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য জাফর আলমকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতির ঘটনায় চকরিয়া ও পেকুয়ায় দলীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অব্যাহতির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাতে দলীয় নেতাকর্মীরা চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে ব্যাপক বিক্ষোভ করেছেন। ফলে রাত ১টা পর্যন্ত মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধই ছিল। ওই সময় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দ্রুত চলে যান এবং শহরে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
শুক্রবার (১১ জুন) সন্ধ্যায় চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি জাফর আলম চকরিয়ার বঙ্গবন্ধু কর্নারে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, চকরিয়া পৌর নির্বাচনের দলীয় প্রার্থীর সঙ্গে সামান্য ধাক্কাধাক্কির ঘটনাকে কেন্দ্র করে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণ গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে প্রথমে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু ও পরে তাকে এবং উপজেলা যুবলীগের সদস্য হাসানুল ইসলামকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেন।
তিনি দাবি করেন, বর্তমান পৌর মেয়র ও পৌর নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া আলমগীর চৌধুরী পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছেন। ফলে পৌর এলাকায় কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন হয়নি। ফলে তিনি কাঙ্ক্ষিত ফলাফল নাও পেতে পারেন আশঙ্কা করে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য নানা কৌশল অবলম্বন করে যাচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কিছু দায়িত্বশীল নেতাকে ম্যানেজ করে নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন।
সাংসদ জাফর আলম বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়রের অযোগ্য নেতৃত্বের কারণে পৌরসভায় জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। এর খেসারত দিচ্ছে পৌরবাসীসহ দেশি-বিদেশি পর্যটকরা। এ ছাড়া কক্সবাজার পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান স্বীয় পদ-পদবি ব্যবহার করে পৌর শহরের অনেক হোটেল, শপিংমল জবরদখল করে রেখেছেন। এসব অপকর্মের কারণে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে বেশকিছু দুর্নীতির অভিযোগ দুদকের তদন্তাধীন রয়েছে। তাদের এসব অপকর্মের প্রতিবাদ করায় গঠনতন্ত্র উপেক্ষা করে তিনিসহ তিন নেতাকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে দাবি জানিয়েছেন, অবিলম্বে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি গঠন করার।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন সদ্য অব্যাহতিপ্রাপ্ত পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলার সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, পেকুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, পেকুয়া আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাসেম উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশসহ প্রমুখ। এ সময় স্থানীয় বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-