সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ সোমবার | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চকরিয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও লুটপাট, স্কুল ছাত্রীসহ আহত-৩

বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট ২০২১ | ৬:১০ অপরাহ্ণ | 393Views

চকরিয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও লুটপাট, স্কুল ছাত্রীসহ আহত-৩
সন্ত্রাসীদের হামলায় একই পরিবারের তিন সদস্য আহত

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসতঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর ও নগত টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এসময় স্কুল ছাত্রীসহ ৩ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৩ জনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত মঙ্গলবার (১৭ আগষ্ট) দুপুর ১২টায় উপজেলা লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড জিদ্দাবাজার পূর্ব পাড়ায় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রাস্থ পরিবার হামলাকারীদের অভিযুক্ত করে চকরিয়ায় থানায় এজাহার দায়ের করেন। মামলা দায়ের করায় হামলাকারীদের হুমকি-দমকিতে নিরাপত্তাহীনতার পাশাপাশি ভয়ে এলাকা ছাড়া হয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সদস্যরা।

হামলায় আহতরা হলেন, একই এলাকায় মৃত আবুল হোসেন ছেলে রশিদ আহমেদ (৪০) দিলোয়ারা বেগম (৩৫) ওয়াহিদ জন্নাত (১৭)

স্থানীয় ও ভুক্তভুগী সূত্রে জানাযায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসতবাড়ি মাটি বাড়ির সীমানায় সামান্য মাটি নেমে আসায় মাটি গুলো বাড়ি সীমানায় তুলতে গিলে বাড়ি এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। রশিদ প্রতিবাদ করলে একই গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ শফির নেতৃত্বে তার পূত্র জসিম উদ্দীন,নজরুল ইসলাম বাবুল,জয়নাল আবেদীন,রাবেয়া বেগম,এ্যানি আক্তার,কহিনুর আক্তার সহ ১০-১২ জনের সন্ত্রাসীরা বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা এলোপাতারি পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে রশিদের পরিবারের তার স্ত্রী মেয়েকে। এসময় তারা রশিদের বসত ঘরের বেড়া ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে আসবাবপত্র ও থালাবাটি ভাংচুর করে ও ঘরের আলমারীতে রক্ষিত নগদ ৬০ হাজার টাকাসহ স্বর্ণের কানেরদুল লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেছেন রশিদ। এই ঘটনায় রশিদের স্ত্রী দিলোয়ারা বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

আহত দিলোয়ারা বেগম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বসত বাড়িতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দা ছুরি কিরিচ ও লাঠি ছোরা নিয়ে অতর্কিত হামলা ও ভাঙচুরের তান্ডব চালায় একই এলাকার মৃত আবুল হোসেনের পূত্র মোহাম্মদ শফির নেতৃত্বে হামলা চালায়। ঘটনার সময় বাড়িতে কোন পুরুষ লোক ছিল না। হঠাৎ করেই কয়েকজন যুবক ভাগে ভাগে বসতঘরে ঢুকে অতর্কিত হামলা চালায়। পরক্ষণে এলাকাবাসী জড়ো হতে থাকলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।যাওয়া সময় আমার পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যায়। আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। পরে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চকরিয়া থানায় গিয়ে একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ শাহ ফাহিম আহমাদ ফয়সাল বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে দিকে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় ৩ জন হাসপালে আসে,তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, এজাহার পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-