সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ সোমবার | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চকরিয়ায় ধর্ষণ ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি ছাবের রয়ে গেল ধরাছোঁয়ার বাইরে

রবিবার, ২৯ আগস্ট ২০২১ | ৬:২৫ অপরাহ্ণ | 391Views

চকরিয়ায় ধর্ষণ ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি ছাবের রয়ে গেল ধরাছোঁয়ার বাইরে
নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কক্সবাজারের চকরিয়ায় বহুল আলোচিত চাঞ্চল্যকর জিয়াবুল হত্যার প্রধান আসামী ও ধর্ষণ সহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত একাধিক মামলার আসামি ছাবের আহামেদ দীর্ঘদিনেও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশের চোখকে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। গত দুই মাস ধরে। তাকে আইনের আওতায় আনতে পারেনি পুলিশ। বিত্তশালী হওয়ায় নানা কৌশলে অভিযুক্ত ছাবের ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন বলে অভিযোগ বাদি পক্ষের। দীর্ঘসময় ধরে আইনের বাইরে থাকায় ন্যায় বিচার পাওয়া নিয়েও শঙ্কা ভুক্তভোগী পরিবার। ধর্ষণের মামলা আসামি ছাবের প্রতিনিয়ত মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে। এতে নিরাপত্তাহীনতায় দিন পার করছেন ভুক্তভোগী পরিবার।
গত (১০ জুন) চকরিয়া সাংগঠনিক উপজেলা মাতামুহুরি ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন মোহছেনিয়া ইসলামীয়া দাখিল শ্রেণির ছাত্রী এই এলাকায় ৭নং ওয়ার্ডের খাঁস পাড়া গ্রামের মৃত গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে তাছলিমা জন্নাত (১৬) ফুফু বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সময় ওই ছাত্রী অপহরণ ও ধর্ষণের শিকার হয়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১০ জুন ফুফু বাড়িতে বেড়াতে  যাওয়ার সময় ওই ছাত্রী অপহরণের শিকার হয়। এরপর ১১ জুন চকরিয়া  থানায় মামলা দায়ের করে ছাত্রীর মা। মামলার অভিযুক্ত আসামি একই এলাকার মৃত আব্দুল করিমের ছেলে আব্দুল আমিন, একই গ্রামের মৃত আলী আহামেদ ছেলে হত্যা,ডাকাতিসহ একাধিক মামলার আসামি ছাবের আহামেদ দুই জনকে আসামি করে এজাহার দাখিল করেন। থানায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি বখাটে আব্দুল আমিন গ্রেফতার করে এবং অপহরণের শিকার ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে। তবে একাধিক মামলার আসামি ছাবের এখনো অধরাই রয়ে গেছেন।
ভুক্তভোগী মেয়েটির পরিবারের সদস্যরা জানায়,
মামলার প্রধান আসামিরা তাঁর মেয়েকে প্রায় সময়ই উত্ত্যক্ত করতো এবং কুপ্রস্তাব দিতো। এক পর্যায়ে বাড়ির পাশ্ববর্তী ফুফু বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সময় তেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনার পরে দুই জনকে আসামি করে থানয় মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার হলেও অপর আসামি এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন। বর্তমানে আসামি প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আসামিদের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় তারা ভুক্তভোগী পরিবারটিকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে। তাই অপর আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবারটি।  
তাহার বিরুদ্ধে দুইটি মামলা রুজু করা হয়েছে। নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা নং ৭/৩০। অপর মামলা নং ১৭/২৯৭।
ধর্ষিতা তাছমিন জানান, আমি সহ আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। বিভিন্ন মাধ্যম দিয়ে আমাকে হুমকি দিয়ে আসছে আজ আমার জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই তাই জনপ্রতিনিধি প্রশাসনের  কাছে আমার আকুল আবেদন একাধিক মামলার আসামি সন্ত্রাস ছাবের আহামেদকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। 
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, থানায় মামলা হওয়ার পরদিন আমরা অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছি। অপর আসামিকে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান। 
-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-