রবিবার, ১৬ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ রবিবার | ১৬ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বদরখালীর নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আরিফকে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতি’র গণসংবর্ধনা

শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২১ | ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ | 59Views

বদরখালীর নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আরিফকে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতি’র গণসংবর্ধনা
এই প্রথমবার কোন চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা দিলেন বদরখালী সমিতি

সাইফুল ইসলাম সাইফ,চকরিয়াঃ

দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতি গণসংবর্ধনা দিয়েছেন,বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান,বদরখালী ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নুরে হোছাইন আরিফকে।

৯ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) বিকেলে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির ভবনে এই গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়।

সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল আলম সিকদারের সভাপতিত্বে,অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সম্পাদক নুরুল আমিন জনি।সংবর্ধিনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, সংবর্ধিত অতিথি বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও নৌকা নিয়ে নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরে হোসাইন আরিফ। গণসংবর্ধনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন,বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খাইরুল বশর, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা জুবাইর আহমদ বিএসসি। গণসংবর্ধনায় বক্তব্যে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সম্পাদক নুরুল আমিন জনি বলেন, যারা গত ২৮ শে নভেম্বর নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় বদরখালী সমবায় সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির অফিস ভবনে ঢিল নিক্ষেপ করেছেন সে সমস্ত সমিতি বিরোধীদের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করেছেন এবং তাদের প্রতি আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির ভবনে ঢিল নিক্ষেপ করেনি তারা বদরখালীর ২৬২ শেয়ার তথা দেড় হাজার সভ্যবের কলিজার মধ্যে ঢিল নিক্ষেপ করেছে। তাদের বিচার বদরখালী বাসীকে দিলাম।
অনুষ্ঠানে হাজার হাজার বদরখালীর বাসির উদ্দেশ্যে
সংবর্ধিত অতিথি নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরে হোসাইন আরিফ বলেন.সদ্য ২৮ নভেম্বর নির্বাচনে আমাকে যারা বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছেন তাদের কাছে চির কৃতজ্ঞ,এবং যারা আমাকে ভোট দেন নাই তাদের কেউ ধন্যবাদ।কোন প্রতি হিংসা নয়,নির্বাচন চলে গেছে।বদরখালীর ৬০০০০ হাজার জনগোষ্ঠী সবাই আমার কাছে সমান।বদরখালীর মানুষ জন্ম নিবন্ধন, মৃত্যু সনদ,বাণিজ্য এসব হয়রানিতে আর থাকবেনা ইনশাআল্লাহ । যথাযথ সকল সেবা পাবেন। আমি সবাইকে সাথে নিয়ে বদরখালী সাজাবো।এবং আমার ইউনিয়নে, মাদক সন্ত্রাস ভূমিদস্যু, এবং খারাপ মানুষের স্থান হবেনা।
তিনি আরও বলেন.যতদিন বেঁচে থাকি বদরখালী সমবায় সমিতির স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জীবন বাজি রেখে সমিতির পাশে থেকে সমিতির দুঃখের সারথি হয়ে কাজ করে যাব। আমি বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির কাছে চির কৃতজ্ঞ,বদরখালী সমিতি আমাকে সম্মান করেছে,পাশাপাশি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মান করছে। কারণ আমি আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী, নৌকা নিয়ে নির্বাচিত চেয়ারম্যান।
অন্যদিকে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতি’এই প্রথমবার কোন চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা দিলেন।
এদিকে সংবর্ধনা অনুষ্টান শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কণ্যা অটিজম বিশেষজ্ঞ সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের জন্মদিনের কেক কাটা ও জন্মদিন পালন করা হয়। জানাগেছে ১৯৯১ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতিতে লবণচাষী সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসেছিলেন।তৎকালীন উক্ত লবণচাষী সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন, প্রয়াত বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির সভাপতি আব্দুল হান্নান বি,এ। সেইদিন নেত্রীর সফরসঙ্গী ছিলেন, আগামীর রাষ্ট্রনায়ক সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।তাই বদরখালীর মানুষকে তিনি চেনেন জানেন।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাস্টার আব্দুল জলিল,বদরখালী সমবায় কৃষি উপনিবেশ সমিতির সাবেক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন খান, বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সহ সভাপতি আলী মোহাম্মদ কাজল,সদস্য কুতুব উদ্দিন,বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতি পরিচালনা কমিটি এবং বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সাধারণ সদস্য।

-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-