বৃহস্পতিবার, ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
আজ বৃহস্পতিবার | ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

চকরিয়ায় জমি দখলের ব্যর্থ হয়ে বৃদ্ধ নারীকে মারধর, বসতবাড়িতে ভাংচুর-লুটপাট

মঙ্গলবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৭:৩২ অপরাহ্ণ | 284Views

চকরিয়ায় জমি দখলের ব্যর্থ হয়ে বৃদ্ধ নারীকে মারধর, বসতবাড়িতে ভাংচুর-লুটপাট

চকরিয়ায় প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় জমি দখলের ব্যর্থ হয়ে বসতবাড়িতে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা নিরীহ পরিবারের উপর হামলা ভাংচুর ও লুটপাট ঘটনা ঘটেছে। এসময় প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধ নারী গুরুতর আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারধীন রয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রবিবার সন্ধ্যায় পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ড বাঁশঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে চকরিয়া থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

ভুক্তভোগী সালমা বেগম জানান, আমার বাবা এজার মিয়া ৩ শতাংশ জমি ওয়ারিশসূত্রে মালিক হয়ে বসতবাড়ি নির্মাণ ও গাছপালা রোপণ করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছি। একই এলাকার সন্ত্রাসী বিভিন্ন মামলার পরোয়ানা ভুক্ত আসামী কালু মিয়ার ছেলে নেজাম উদ্দিন ও মোঃ মিজান, মোঃ মালেক তার স্ত্রী মালেকা বেগম, মোঃ আরমান, ফাতেমা বেগম, সেলিনা আক্তার, কুলছুমা বেগম আমার বসতবাড়ি দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। এরই মাঝে বেশকয়েকবার তাদের জমি দখলের চালিয়েছিল এ সন্ত্রাসীরা। গত কয়েকদিন ধরে আমার জমিতে বসতবাড়ি নির্মাণের কাজ চালিয়ে আসছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে প্রতিপক্ষের বহিরাগত সন্ত্রাসীসহ ১০/১২ জন রামদা, ছুরি, চাপাতি, লোহার রড, লাঠি সোঠা ইত্যাদী দেশীয় তৈরি বিভিন্ন অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সালমা বেগমের বসতবাড়িতে ব্যাপক হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা তাদের জমির নির্মাণাধীন তৈয়ারের সানসিট ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। এসময় আমি বাধা দিতে গিলে আমাকে এলোপাথারীভাবে মারধর পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। এসময় সন্ত্রাসীরা স্বর্ণালংকার, মোবাইল টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়া বাড়িঘর ও দেওয়াল ভাংচুর করে ৫০ হাজার টাকা ক্ষতি সাধন করে। এসময় ডাক-চিৎকারে আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে, আমার স্বামী আব্দু শুকুর, ছেলে সোহেলের গায়ের জামাকাপড় টেনে ছিঁড়ে শ্রীলতাহানি চেষ্টা করে এবং তাদের কেও রড ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম ও আহত করে। আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের লোকজন হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়। আহত অবস্থায় আমাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিলে কর্মরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেপার করেন।

এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষের লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেন।

-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-